২ হা’জার বছরের পুরোনো ক’বরে পাওয়া গেলো আইফোন!

স্মার্ট’ফোনের ইতিহাস খুব বেশিদিনের না। স্মার্টফোন তো দূরে থাক মুঠো’ফোনে একে অপরের সঙ্গে কথা বলতে পারবে আমাদের আগের প্রজন্মও বোধ হওয়ার পর ভা’বেনি। কিন্তু রাশিয়ায় দুই হাজার বছরের পুরোনো ক বর থেকে

একটি ‘স্মার্ট’ফোন’ উদ্ধার করা হ’য়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। বেশ ক’য়েকটি ব্রিটিশ গণমাধ্যমসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্য’মগুলো ঘটা করে এ খবর প্রকাশ করেছে। তারা বল’ছে, ফোনটি মার্কিন মুঠোফোন নির্মাতা প্রতি’ষ্ঠান

অ্যাপলের। তবে দুই হাজার বছরের পুরোনো ক বরে ‘আইফোন’ গেলো কী’ভাবে তার সন্তো’ষজনক ব্যাখ্যা কেউই দিতে পারেনি। যে ক বরটি থেকে ওই ‘স্মার্ট’ফোনটি’ খূজে পাওয়া গেছে সেটি এক তরুণীর। ক বরটি রাশিয়ার সায়ানো-

শু’শেনস্কায়া বাঁধের কাছের আলা নামের এক জলা’ধারে অবস্থিত। সেখানকার পানি সরাতে গিয়েই বেশ ক’য়েকটি প্রাচীন ক বরের সন্ধান মিললে সেখান থেকেই ওই ‘স্মার্টফোন’ উদ্ধার করা হয়।

রাশিয়ার তুভা অ’ঞ্চলে অবস্থিত ওই ক বরের এলাকাকে মূলত দ্য রাশিয়ান আটলান্টাস নামে পরিচিত। ব’ছরের বেশিরভাগ সময় এলাকাটি পানির নিচে তলিয়ে থাকে। শুধু মে আর জুন মা’সে পানির স্তর নেমে গেলে গবেষকরা সেখানে নানান কিছুর খোঁজ চালান।

স্থানীয় গণমাধ্যম সাইবেরিয়ান টাই’মসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ওই ক বরে স’মাহিত তরুণীর নাম নাতাশা। তিনি এক ধনী পরিবারের সন্তান ছিলেন। সাই’বেরিয়ান টাইমস বলছে, ‘আই’ফোনটি’ চীনা উইঝু নামের রত্নখচিত মুদ্রা দিয়ে সাজানো ছিল। প্রত্নতত্ত্ববিদ ও বিশেষজ্ঞরা দাবি করছে, কবরটি ২ হাজার ১৩৭ বছর আগে জি’ওনগু শাসন আমলের।

ম র দেহটি সম্ভ্রান্ত হুন তরুণীর। তার প’রিবার দক্ষিণ রাশিয়ার গ্রামীণ অঞ্চলে থাকতেন। ক বর গুলো খ্রি’ষ্টপূর্ব তৃতীয় শতকের। সেন্ট পিটার্সবার্গ ইনস্টিটিউট অব ম্যাটেরিয়াল হিস’টোরি কালচারের গবেষক ড. ম্যারিনা কিলু’নোভস্কায়া ওই এলাকাটিকে ‘বৈ’জ্ঞানিক আশ্চর্য’ বলে বর্ণনা করেছেন।

তিনি ব’লেন, তার প্রত্নতাত্ত্বিক অভিযান পরিচালনাকারী দল ‘অবি’শ্বাস্যভাবে সৌভাগ্যবান’ যে তারা প্রাচীন ক বরস্থান আ’বিস্কার করেছে। প্রত্ন’তাত্ত্বিক ড. পাভেল লিওস বলেন, ‘নাতাশার ক বরটি হুনু-যুগের (জিওনগু)। সেখানে “আইফোন” পাও’য়ায় ব্যাপারটি এখন সবচেয়ে আকর্ষণীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ওই ক বরের হা ড় গোড়ের সঙ্গে বেল্ট ছিল। বে’ল্টটি চীনের উজহু মুদ্রায় সজ্জিত ছিল। আর সে কা’রণে এটি কোনো সময়ের, তা জানতে সুবিধা হয়েছে।’ স্মার্ট’ফোনের মতো যে ধাতব বস্তুটি পাওয়া গেছে সেটি দৈর্ঘ্য ১৮ সেন্টি’মিটার এবং প্রস্থ ৯ সেন্টিমিটার। তার বেল্টটি বিলাসবহুল রত্নপাথর দিয়ে মোড়ানো। যে মুক্তা দিয়ে সেটি সজ্জিত ছিল তাকে বলা হয় সকল মুক্তার মা। আর নাতাশার বেল্টটি চীনের উইঝু কয়েন দিয়ে খচিত।’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*