আমি মরে যাই বা আমি গুম হয়ে যাই বা হারিয়ে যাই ইলিয়াস ও তার পরিবার দায়ী: সুবাহ।

সংগীতশিল্পী ইলিয়াস হোসাইন ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন নবাবাগত চিত্রনায়িকা শাহ হুমায়রা সুবহাকে। তাদের দাম্পত্য জীবনের এক মাস অতিক্রম না হতেই বেঁজে ওঠে ভাঙনের সুর। এরপর ইলিয়াসের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ আনেন সুবাহ।

এমনকি এই গায়কের বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও করেন সুবাহ। সুবাহর বিরুদ্ধেও পাল্টা মামলা করলেন ইলিয়াস। তাদের দাম্পত্য কলহ এখন চরম আকার ধারণ করেছে।

এবার ইলিয়াসকে নিয়ে নতুন খবর দিলেন সুবাহ। তার ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

ইলিয়াস নিজেই আমার আগে তিন চারটা বিয়ে করেছে সবগুলারই খবর পত্রিকায় কাভারেজ হয়েছিল এবং সে সবার কাছ থেকেই ডলার এবং টাকা চাইত তার ১ম বউ আমেরিকার প্রবাসী নিশাত তাবাসসুম আলম বলছে সবখানে। তার দ্বিতীয় সুইডেনের স্ত্রী এবং তার মায়ের সাথে আমার কথা হয়েছিল তারাও বলেছে তাদের থেকেও সে বিভিন্ন সময় টাকা পয়সা চাইতো সব রেকর্ড গুলো আমার কাছে আছে।

আমার যদি আগে বিয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আগের বিয়ের কাবিননামা আছে? কাবিননামা বা রেজিস্ট্রির কাগজ ছাড়া তো বিয়ে হওয়ার কথা না। এইসব উল্টাপাল্টা মিথ্যা ছড়িয়ে সে আমার দেওয়া মামলাগুলো থেকে বাঁচতে চাচ্ছে যেন আমি মামলা তুলে নেই এবং দেনমোহরের টাকা না দেওয়ার ফন্দি করছে। আমি যানি সে নারী ও টাকা লোভী পুরুষ তাই আমি সবাইকে জানিয়ে দেনমহরের টাকাটা চেয়েছি এইটাই হয়েছে আমার দোষ!!

এতো দিন পর নাটক সাজিয়ে আনছে !!!! আমার আগের তিন বিয়ে হওয়া পুরুষকে আমি কিভাবে ফাঁসিয়ে বিয়ে করব তাও এত কম টাকা কাবিনে দেনমহরে? যদি ফাঁসিয়ে বিয়ে করতাম তাহলে দেনমোহর থাকতো ৭৭ লক্ষ টাকা।। এখন মাত্র টাকা ৭ লাখ ৭৭ হাজার টাকা থাকতো না ।!! সে দোষী না নির্দোষ ই সেটার আদালতে প্রমাণ হবে ইনশাআল্লাহ আমার ১০০ বিয়ের কথা বলে আমাকে ভাইরাল করা যাবে বাট মামলা থেকে বাচা যাবেনা।

আর আমার যদি কোন প্রকারের ক্ষয়ক্ষতি এবং আমি মরে যাই বা আমি গুম হয়ে যাই বা হারিয়ে যাই এর জন্য ইলিয়াস হোসেন এবং ইলিয়াস হোসেনের পুরো পরিবার দায়ী থাকবে আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন আমাকে সে সব সময় ভয় ভীতী বিভিন্নভাবে ক্ষতি করার চেষ্টা করছে এবং সামাজিক হেয় করছে যাতে আমি অনেক ভেঙে পরী।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*